1. [email protected] : editor :
  2. [email protected] : foysal parveg : foysal parveg
  3. [email protected] : shakil007 :
বিচারহীনতার রেওয়াজে বাড়ছে নারী নির্যাতন: গণকমিটি - মাগুরার খবর
শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৩৮ পূর্বাহ্ন

বিচারহীনতার রেওয়াজে বাড়ছে নারী নির্যাতন: গণকমিটি

মাগুরার খবর ডটকম
  • প্রকাশিতঃ বুধবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২০

সারাদেশে অব্যাহত ধর্ষণ ও নারী-শিশু নিপীড়ন ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ জোরদার করার দাবিতে মাগুরায় সমাবেশ করেছে জেলা গণকমিটি। বুধবার বিকাল ৩.৩০টায় শহরের শহীদ আতর আলী গণ গ্রন্থাগার চত্বরে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সমাবেশে অংশ শতাধিক নারী পুরুষ।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন গণকমিটির আহ্বায়ক এটিএম মহব্বত আলী ( বাংলাদেশ জাসদ মাগুরা জেলা শাখার সভাপতি)। সমাবেশে বক্তব্য প্রদান করেন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি মাগুরা জেলা শাখার সভাপতি বীরেন্দ্রনাথ বিশ্বাস, গণকমিটির যুগ্ম সদস্য সচিব প্রকৌশলী শম্পা বসু (বাসদ কেন্দ্রীয় পাঠচক্র ফোরামের সদস্য), বাংলাদেশ জাসদ মাগুরা জেলা শাখার নেতা বাহারুল হায়দার বাচ্চু , সিপিবি মাগুরা জেলা কমিটির সদস্য সামছুন নাহার জোছনা, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী মাগুরা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, প্রফেসর আবুবকর সিদ্দিকী । সমাবেশ পরিচালনা করেন জাসদ ছাত্রলীগের জেলা সভাপতি আকাশ আহমেদ ।


সমাবেশে বক্তারা বলেন, সারাদেশে ধর্ষণ, নারী-শিশু নির্যাতন এক ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে । একের পর এক ধর্ষণ-নিপীড়ন ঘটে চলেছে আর একটি ঘটনা বর্বরতায়, বিভৎসতায় আগেরটিকে ছাপিয়ে যাচ্ছে। এসব ধর্ষণ, নারী নিপীড়নের ভয়াবহতা আমাদেরকে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে হানাদারবাহিনী দ্বারা সংঘটিত নারী নির্যাতনকেই স্মরণ করিয়ে দেয়। স্বাধীনতার ৫০ বছর  দোরগোড়ায় এসেও দেশের কোন একটি জায়গা নেই যেখানে নারী নির্যাতন ঘটে না। ঘরে, বাইরে, পাহাড়ে, সমতলে, পথে, গণপরিবহনে, কর্মক্ষেত্রে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে সকল স্থানেই নারী-শিশুরা নির্যাতনের শিকার হন। আর অন্যদিকে দেশে চলছে বিচারহীনতার রেওয়াজ । নারী-শিশু ধর্ষণ-নির্যাতনের ১০০ টি মামলার ৯৭ টির-ই কোন বিচার হয় না। কেবল মাত্র ৩ টি মামলার বিচার হয়।

তাঁরা বলেন, এই বিচারহীনতার রেওয়াজে ক্ষমতা ও অর্থের দাপটে অপরাধীরা পার পেয়ে যায়। আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে। ক্ষমতাকেন্দ্রিক লুটপাটের দুর্বৃত্তায়িত রাজনীতি বিচারহীনতার রেওয়াজকে উসকে দেয় ।

বক্তাগণ আরও বলেন, ধর্ষক পশু নয়; আমাদের থেকে স্বতন্ত্র কোন জীব না। কোন মানুষ ধর্ষক হয়ে জন্মগ্রহণ করে না, সমাজের নানা অসঙ্গতিপূর্ণ আচরণবিধির মধ্যেই সে ধর্ষক হয়ে ওঠে। ধর্ষণের অন্যতম প্রধান কারণ সমাজে নারী-পুরুষের অধিকারের অসমতা। সমাজে নারীকে মানুষ হিসেবে মর্যাদা না দেওয়া। সমাবেশ থেকে সকল ধর্ষণ-নিপীড়ন-হত্যার বিচারের দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান হয় ।

এই বিভাগের আরো খবর

error: মাগুরার খবর সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
© সর্বস্বত্ব -২০১৯- ২০২০ মাগুরার খবর.    কারিগরি ব্যবস্থাপনায় - মাগুরা আইটি সল্যুশন 

কারিগরি সহায়তায়ঃ আইটি বাজার
error: মাগুরার খবর সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত